সংবাদ শিরোনাম :
দেশজুড়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা : রিজভী অল্প রানে গুটিয়ে গেল নেদারল্যান্ডস রংপুরে ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বাতিল হতে পারে বিশ্বকাপের পাক-ভারত ম্যাচ! সমুদ্রবন্দরে তিন নম্বর সতর্কতা সংকেত ডিএমপি কমিশনার-র‍্যাব ডিজি’র পদোন্নতি এবার রংপুরে হিন্দুপাড়ায় আগুন, আটক ২০ আমেরিকা ও কানাডাকে উসকানির ব্যাপারে সতর্ক করল চীন যুদ্ধ শুরু হলে হিজবুল্লাহ প্রতিদিন ২৫০০ রকেট ছুঁড়তে পারবে’ বিশ্বকাপ জিতেই অধিনায়কত্ব ছাড়তে চান কোহলি চবির ১২ ছাত্রলীগ কর্মীকে বহিষ্কার বিএনপি-জামায়াত ও তাদের দোসররা কুমিল্লার ঘটনা ঘটিয়েছে : তথ্যমন্ত্রী
বিরূপ প্রভাব ফেলবে: ক্লিন ফিড হলেও এসব অনুষ্ঠান প্রচার নয়

বিরূপ প্রভাব ফেলবে: ক্লিন ফিড হলেও এসব অনুষ্ঠান প্রচার নয়

নিজস্ব প্রতিবেদক :  

বন্ধ হওয়া বিদেশি চ্যানেলগুলো ক্লিন ফিড পাঠাবে- এমন আভাস মিলেছে কোয়াবের কাছ থেকে। এদিকে সমাজে বিরূপ প্রভাব ফেলবে, ক্লিন ফিড হলেও এমন অনুষ্ঠান প্রচার করতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

ধুবার (৬ অক্টোবর) সকালে সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এ কথা বলেন।

তিনি আরও জানান, আগামী বছর থেকে কোনো  অনলাইন নিউজ পোর্টাল প্রকাশের আগেই রেজিস্ট্রেশন নিতে হবে। যেসব আইপি টিভি সংবাদ প্রচার করে, সেগুলোও বন্ধ করে দেওয়া হবে।

গতকাল দেশে ২৪টির বেশি বিদেশি চ্যানেল ক্লিন ফিড দেয়, এগুলো চালাতে কোনো বাধা নেই। এরপরও এগুলো কেউ না চালালে লাইসেন্সের শর্ত ভঙ্গ হবে বলে জানান তথ্যমন্ত্রী ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, কেবল অপারেটর ও ডিস্ট্রিবিউটরদের লাইসেন্সের শর্ত মেনে চলতে হবে। কেউ আইন ভঙ্গ করলে আইন অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আগামী ৩০ অক্টোবরের মধ্যে ঢাকা ও চট্টগ্রামে কেবল লাইন ডিজিটালাইজেশন করতে হবে।

বিদেশি চ্যানেলের ক্লিন ফিড নিয়ে যারা বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে তারা দেশ ও মিডিয়ার শত্রু বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ।

সচিবালয়ে টেলিভিশন মালিকদের সংগঠন অ্যাটকোর সঙ্গে বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, ২৪টির বেশি বিদেশি চ্যানেল বাংলাদেশে ক্লিন ফিড দেয়, এগুলো চালাতে কোনো বাধা নেই। এরপরও এগুলো কেউ না চালালে লাইসেন্সের শর্ত ভঙ্গ হবে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের আকাশ সবার জন্য উন্মুক্ত। শুধু ইউরোপের দেশ নয়, উপমহাদেশের সব দেশেই ক্লিন ফিড চালাতে হয়। সে আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করা হয়েছে। আইন বাস্তবায়নের জন্য কেবল অপারেটরদের ২ বছর সময় দেওয়া হয়েছিল। সবার সঙ্গে বৈঠক করেই ১ অক্টোবর থেকে আইনটি বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।  এখন একটি মহল থেকে এটা নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর অপচেষ্টা চলছে। তারা দেশ, মিডিয়া, শিল্পী কলাকুশলী সবার বিপক্ষে গিয়ে তারা অবস্থান নিচ্ছে।

হাছান মাহমুদ বলেন, দেশের আকাশ সব চ্যানেলের জন্য উন্মুক্ত কিন্তু সেটা হতে হবে দেশের আইন মেনে। বাংলাদেশে ক্লিন ফিড পাঠানোর দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট চ্যানেলগুলোর। এ জন্য বেশি প্রযুক্তির প্রয়োজন পড়ে না। কেবল অপারেটর ও ডিস্ট্রিবিউটরদের লাইসেন্সের শর্ত মেনে চলতে হবে। কেউ আইন ভঙ্গ করলে আইন অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, আইপিটিভি বাস্তবতা; তবে ব্যাঙের ছাতার মতো অনুমোদন দেওয়ার প্রযোজন নেই। জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা অনুযায়ী কোনো আইপিটিভি কোনো সংবাদ প্রচার করতে পারবে না।

চ্যানেল ডিজিটালাইজেশন সম্পর্কে তিনি বলেন, গ্রাহকের কাছ থেকে সেপটপ বক্সের টাকা নেওয়া হবে। ৩০ অক্টোবরের মধ্যে ঢাকা ও চট্টগ্রামে কেবল লাইন ডিজিটালাইজেশন করতে হবে।

মুক্তি.. / জয়নুল / রেজা

Print Friendly, PDF & Email

আপনার সোশ্যাল মিডিয়াতে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2015-2021 Muktiralo24.Com
Design & Developed BY SD REPON KHAN