রাহুল-সোনিয়াকে নিয়ে বিবাদে কংগ্রেস

রাহুল-সোনিয়াকে নিয়ে বিবাদে কংগ্রেস

19 Disem 2020 , 01:04 Pm

কংগ্রেসের পরবর্তী সভাপতি কে হচ্ছেন, এ নিয়ে আগামী ১০ দিন দলটির শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে ধারাবাহিক বৈঠক করতে চলেছেন বতর্মান সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী। দলের নীতি নির্ধারণ নিয়ে বেশ কিছু দিন ধরেই ভেতর-বাইরে অসন্তোষ প্রকাশ করছেন নেতা-কর্মীরা। কংগ্রেসের ‘ক্ষুব্ধ’ নেতারা দলের সব পদে নির্বাচনের দাবি জানালেও আপাতত শুধু দলের সভাপতি পদেই নির্বাচন হতে যাচ্ছে।

শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) থেকে কংগ্রেসের জ্যেষ্ঠ নেত্রী সোনিয়া গান্ধী দলের নেতাদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে বৈঠক শুরু করছেন। সম্প্রতি গোলাম নবী আজাদ, আনন্দ শর্মা, শশী থারুরের মতো ২৩ প্রভাবশালী নেতা সভানেত্রী সোনিয়াকে এক চিঠিতে দলের হালচাল নিয়ে চরম ক্ষোভ জানান। এরপরই আলোচনার ডাক দেন সোনিয়া।

শনিবারের প্রথম বৈঠকে মনমোহন সিংহ, এ কে অ্যান্টনি, অশোক গহলৌত, কমল নাথ, পি চিদাম্বরমসহ বেশ কজনের পাশাপাশি বিক্ষুব্ধ নেতাদেরও বৈঠকে ডাকা হয়েছে। কংগ্রেসের এমন পরিস্থিতিতে বৈঠকে জ্যেষ্ঠ নেতা রাহুল গান্ধীও উপস্থিত থাকছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। আগামী বছরের মাঝামাঝিতে পশ্চিমবঙ্গ-সহ বেশ কিছু রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন। কংগ্রেসের নির্বাচনী রণকৌশলের পাশাপাশি বৈঠক থেকে সভাপতি পদে নির্বাচন এবং সাংগঠনিক রদবদলের প্রসঙ্গও আসতে যাচ্ছে।

গেল শুক্রবার (১৮ ডিসেম্বর) গান্ধী পরিবারের এক ঘনিষ্ঠ নেতা বলেন, আগামী বছরের ফেব্রুয়ারির মধ্যেই কংগ্রেসের নতুন সভাপতি নির্ধারণ হবে। এমনকি সোনিয়াকে লেখা চিঠিতেই ২৩ বিক্ষুব্ধ নেতার অন্যতম দাবি এমনই ছিল বলেও জানান তিনি।

কে হচ্ছেন ভঙ্গুর কংগ্রেসের পরবর্তী সভাপতি এ নিয়ে চলছে গুঞ্জন। কংগ্রেসের অন্দরমহলে এখন সব থেকে বড় প্রশ্ন, রাহুল ফের সভাপতি পদে রাজি হবেন কি না।

সিনিয়র নেতাদের মতে, রাহুল নিজে না হলেও গান্ধী পরিবারের অশোক বা মুকুল ওয়াসনিকের মতো কাউকে সভাপতি পদে নিয়ে আসতে চাইবে কংগ্রেস। সেক্ষেত্রে দলের অন্যরা ঝামেলা পাকাতে পারে বলেও শঙ্কা থেকে যাচ্ছে। 

তবে কংগ্রেস নেতা রণদীপ সিংহ সুরজেওয়ালা বলছেন, ‘কংগ্রেসের একনিষ্ঠ সদস্যরাই ঠিক করবেন, কে সভাপতি পদে যোগ্য। আমার মতো, কংগ্রেসের ৯৯ দশমিক ৯৯ শতাংশ সদস্যই চান, রাহুল গান্ধী সামনে থেকে দলকে নেতৃত্ব দিক।’     

বিক্ষুব্ধ নেতাদের মূল অভিযোগ ছিল, রাহুল নিজের আস্থাভাজন ছাড়া বাকিদের গুরুত্ব দিচ্ছেন না। তিনি সামনে থেকে দলের দায়িত্ব নিতে নারাজ। কিন্তু পেছন থেকে রাহুলই মা সোনিয়া গান্ধীকে নিয়ন্ত্রণ করছেন বলে ক্ষোভ নেতা-কর্মীদের। আবার মাঠেও তেমন সক্রিয় নন রাহুল। সব মিলিয়ে জনসাধারণের কাছ থেকে তিনি নিজেকে কিছুটা গুটিয়ে রেখেছেন এমনটাই দাবি কংগ্রেসের ক্ষুব্ধ শীর্ষ নেতাদের।

কংগ্রেসের গৃহ কোন্দলে কোন ধরনের প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি রাহুল এবং বোন প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর।

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

© All rights reserved © 2015-2020 Muktiralo24.Com
Design & Developed BY SD REPON KHAN