ই-কমার্সে নারী উদ্যোক্তাদের অংশগ্রহণ বাড়াতে হবে: স্পিকার

ই-কমার্সে নারী উদ্যোক্তাদের অংশগ্রহণ বাড়াতে হবে: স্পিকার

October 24, 2020 – 10:07  pm                    

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, নারী উদ্যোক্তাদের অনেক জটিল ও প্রতিযোগিতামূলক পরিবেশে ব্যবসা পরিচালনা করতে হয়, যা কাম্য নয়। ই-কমার্সে নারী উদ্যোক্তাদের অংশগ্রহণ বাড়াতে হলে অনলাইন পেমেন্ট, কর ও শুল্ক অবকাঠামো সে উপযোগী করতে হবে। প্রযুক্তিভিত্তিক মডেলগুলোকে উন্নত করার মাধ্যমে ই-কমার্স সেক্টরকে আরো সমৃদ্ধ করতে হবে। তাদের প্রাতিষ্ঠানিক সহায়তা, ব্যাংকিং সহায়তা, সুদমুক্ত ঋণ সহায়তা, বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক গৃহীত বিনাসুদে পঞ্চাশ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ সহায়তা, অর্থনৈতিক জোনে নারী উদ্যোক্তাদের জন্য বিশেষ প্লট প্রদানের ব্যবস্থা করতে হবে।

শনিবার রাজধানীতে আয়োজিত ‘উইমেন ই-কমার্স এন্টারপ্রিনিউরশিপ সামিট (উই সামিট) ২০২০’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথি হিসাবে তিনি এসব কথা বলেন।  উইমেন এন্ড ই-কমার্স ফোরামের উদ্যোগে আয়োজিত এ সামিটে সভাপতিত্ব করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। বক্তব্য রাখেন ভারতের হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী, যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম, এসবিকে ফাউন্ডেশন ও টেক ভেঞ্চার্সের প্রতিষ্ঠাতা সোনিয়া বশির কবির, উইমেন এন্ড ই-কমার্স ফোরামের সভাপতি নাসিমা আক্তার নিশা প্রমুখ। সঞ্চালনা করেন উই-এর সহকারী প্রজেক্ট ম্যানেজার ফারজানা তানি। 

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী আরো বলেন, বর্তমান যুগে অনলাইন ও ই-কমাসের সুবাদে নারী উদ্যোক্তারা দেশের সীমা ছাড়িয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ক্রেতাদের আকর্ষণ করার সুযোগ পাচ্ছে। কিন্তু ঋণপ্রাপ্তির ক্ষেত্রে অনেক বাধা-বিপত্তির সম্মুখীন হবার কারণে অধিকাংশ ক্ষেত্রে নারীদের নিজস্ব সামান্য সঞ্চয় থেকে বিনিয়োগ করতে হয়। তারপরও সকল চ্যালেঞ্জকে সম্ভাবনায় পরিণত করেছে নারীরা এবং নিজেদের প্রচেষ্টায় নারী উদ্যোক্তা হিসেবে যথাযোগ্য স্থান করে নিচ্ছে। 

তিনি আরো বলেন, বৈশ্বিক মহামারী কোভিড-১৯ নারী উদ্যোক্তাদের জন্য কিছু গুরুতর চ্যালেঞ্জ নিয়ে এসেছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার কারণে শিক্ষার্থীরা বাসায় অবস্থান করায় নারীদের পারিবারিক দায়িত্ব বেড়ে গেছে, অনলাইন শিক্ষা পদ্ধতিতে মা হিসেবে নারীদের সহায়তা করতে হচ্ছে, নারী উদ্যোক্তাদের পূর্বে নিযুক্ত করা কর্মচারীদের বেতন ও গৃহীত ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতে হচ্ছে। এ সকল সমস্যা থেকে উত্তরণের জন্য তাদের প্রাতিষ্ঠানিক সহায়তা, ব্যাংকিং সহায়তা, সুদমুক্ত ঋণ সহায়তা দিতে হবে।

 muktiralo24.com  //  reza 

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

© All rights reserved © 2015-2020 Muktiralo24.Com
Design & Developed BY SD REPON KHAN